সোনালী ব্যাংক লুট

ঢাকা  বুধবার, ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ২০ চৈত্র ১৪৩০

বাংলা রিপোর্ট : বান্দরবানের রুমা উপজেলা সদরে সোনালী ব্যাংকে হামলা চালিয়ে টাকা ও অস্ত্র লুট করেছে সশস্ত্র গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) সদস্যরা। ওই ব্যাংকের ম্যানেজার নিজাম উদ্দিনকে অপহরণ করেছে লুটকারীরা।

২ এপ্রিল মঙ্গলবার রাত নটার দিকে এ ঘটনা বলে জানিয়েছেন রুমা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. দিদারুল আলম।

তবে ঠিক কী পরিমাণ অর্থ লুট করা হয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

দিদারুল আলম জানান, মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে, কেএনএ‘র ৭০ থেকে ৮০ জনের একটি সশস্ত্র দল রুমা সোনালী ব্যাংকে হানা দেয়। এসময় অস্ত্রের মুখে ব্যাংকের নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশ ও আনসার সদস্যদের জিম্মি করে তাদের ১০টি অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়। এসময় পাশের ইউএনও অফিসের নিরাপত্তা কর্মীরা এগিয়ে আসলে তাদেরকেও আটক করে চারটি অস্ত্রও নিয়ে নেয়। পরে ব্যাংকের সামনের মসজিদ থেকে ব্যাংক ম্যানেজার নিজাম উদ্দীনকে আটক করে তার কাছ থেকে ভল্টের চাবি নিয়ে টাকা লুট করে এবং নিজাম উদ্দীনকে ধরে নিয়ে যায়।

ruma

তিনি আরও জানান, ছিনিয়ে নেয়া অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে পুলিশের আটটি চাইনিজ রাইফেল, দুটি এসএমজি, আনসারদের চারটি শট গান, এসএমজির ৬০ রাউন্ড, চাইনিজ রাইফেলের ৩২০ রাউন্ড এবং শর্টগানের ৩৫ রাউন্ড গুলি। এরই মধ্যে গোটা এলাকা ঘিরে অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনী ও পুলিশ ।

ruma-2

উপজেলার সরকারি সকল বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-বোনাসের টাকা ভল্টে ছিলো।

কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট-কেএনএফ; যারা পাহাড়ে ‘বম পার্টি’ নামে পরিচিত। তারা নিজেদের পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রান্তিক অঞ্চলের অনগ্রসর জনজাতিগুলোর ‘প্রতিনিধিত্বকারী’ নিজেদের পরিচয় দেয়।

সংগঠনটি একটি স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল চায়। যা ‘কুকি-চিন রাজ্যে’ নামে পরিচিত হবে। যেখানে চাকমা,মারমা ও ত্রিপুরারা থাকবে না। থাকবে বম, খিয়াং, পাংখুয়া, লুসাই, খুমি ও ম্রোরা।

পাহাড়ে তাদের আস্তানায় জঙ্গি সংগঠন জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্কীয়ার সদস্যরা সশস্ত্র প্রশিক্ষণ নিয়েছিলো বলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এর আগে গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলো। ঢাকা  বুধবার, ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ২০ চৈত্র ১৪৩০.