শেষ বিকেলে পশুর দাম আকাশ চুম্বী

বাংলা রিপোর্ট : রাত পোহালেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। তাই শেষ বিকেলে কোরবানির পশু কিনতে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন অনেকে। যার প্রভাবে চাহিদা অনুযায়ী হাটে পশু পাচ্ছেন না কোরবানি দিতে ইচ্ছুক মুসলিম নাগরিকরা। বর্ধিত এ চাহিদায় প্রায় দ্বিগুন বেড়ে পশুর দাম হয়েছে আকাশ চুম্বী।তবুও মিলেনি আকাঙ্খিত পশু।

সরেজিমন দেখা যায়, রাজধানীর শনির আখড়ায় কোরবানির পশুর হাটে গতকাল বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) শত শত গরু থাকলেও আজ দুপুরে হাট প্রায় ফাঁকা। কোরবানির পশুর পরিমান কম থাকায় বেশি বেশি দাম হাঁকাচ্ছেন বিক্রেতারা।বৃহস্পতিবার রাত থেকেই গরু-ছাগল বেচাকেনার হার বেড়েছে।

আজ ৩১ জুলাই শুক্রবার সকালে বিকিকিনি হয় অনেক বেশি। গত দুই দিন তুলনামূলক কম দামে বিক্রি করলেও গতকাল রাত থেকে দাম বাড়াতে থাকেন বিক্রেতারা। দুপুরে শনির আখড়া হাটে গিয়ে দেখা যায়, বিক্রির জন‌্য আছে অল্প পরিমাণ গরু। গরু বেঁধে রাখার বাঁশগুলো খুলে ফেলা হচ্ছে।

দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে গরু নিয়ে আসা কয়েকজন বলেন, গত ২ দিন কম দামে গরু বিক্রি করেছি। বুঝতে পারিনি, দাম এমন বাড়বে। গত পরশু যে গরু ৬০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছি, সে রকম গরু আজ ১ লাখ ১০ হাজার টাকায় বিক্রি করলাম। আগে যদি কম দামে বিক্রি করে না দিতাম, তাহলে আজ অনেক টাকা লাভ করতে পারতাম। দেশের বিভিন্ন জেলাউপজেলা সংবাদ দাতাদের পাঠানো তথ্যেও জানা গেছে, দেশের সব হাটেই পশুর চাইতে ক্রেতা কয়েক গুণ বেশি দেখো গেছে। ৩১ জুলাই ২০২০.