নির্বিকার জনপ্রতিনিধি মতলবে তরুণ-যুবকদের সেচ্ছা শ্রমে সড়ক সংস্কার

বাংলা রিপোর্ট : ‘দশে মিলে করি কাজ হারি-জিতি নাহি লাজ’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে চাঁদপুর জেলাধিন মতলব (মতলব দক্ষিণ ) পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড উত্তর দিঘলদী এলাকার কয়েকটি রাস্তা বেহাল দশায় পরিনত হয়েছে ৪-৫ বছর যাবৎ।

এমতাবস্থায় কয়েক বছর ধরে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীসহ হাজারও মানুষ আসা-যাওয়া করেন। বার বার জনপ্রতিনিধিদের কাছে গিয়েও রাস্তাটির কাজ করানো সম্ভব না হলে গ্রামবাসীর মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছিল।

আজ ৩১ জুলাই শুক্রবার পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে গ্রামে আসা তরুণ-যুবকদের উদ্যোগে বালির বস্তা ফেলে রাস্তাটি সংস্কার করতে দেখা গেছে।

একেতো করোনাকালীন সময় তার ওপরে বন্যা আর বহু বৃষ্টিতে এলাকার রাস্তাগুলো পানিতে তলিয়ে যায়। ফলে প্রয়োজনীয় কাজে বেশ দূভোর্গ পোহাতে হচ্ছে এলাকার নাগরিকদের।

উত্তর দিঘলদী এলাকার সেচ্ছা শ্রমে সড়ক সংস্কার করা একাধিক তরুণ-যুবক বলেন, ‘গত ৫ বছর ধরে এই রাস্তাটি বেহাল হয়ে পড়ে আছে। এটি দেখার যেন কেউ নেই। গ্রামবাসী বার বার জনপ্রতিনিধিদের কাছে গেছেন রাস্তাটি সংস্কারের জন্য। কিন্তু কে শোনে কার কথা! নির্বাচন এলে সবাই ভোটের জন্য আসেন, প্রতিশ্রতি দেন রাস্তা করে দেবেন। আর নির্বাচন গেলে কোনো খবর রাখেন না। তাই এলাকার তরুণ-যুবকরা মিলেই রাস্তা সংস্কারের চেষ্টা করেছি।

এব্যপারে ৬নং ওয়ার্ড এর কাউন্সিলর মামুনুর রশিদ মৃধার সাথে এ প্রতিবেদক রাস্তা সংস্কারের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি মুঠো ফোনে বলেন, এলাকার যুবকরা আসছিল, তবে বর্ষার পানির কারণে আমি সংস্কার করতে পারিনি। তবে তরুণ-যুবকদের ধন্যবাদ।

তিনি আরো বলেন, সবসময় রাস্তা সংস্কার করা যায় না। যেখানে সারাদেশের অবস্থা খারাপ। পৌর এলাকার প্রায় ২৫টি রাস্তার বেহাল দশা। সব জায়গায় সমান কাজ করা যায় না।

এদিকে সচেতন মহল বলেন, জণপ্রতিনিধিরা যেখানে পথচারীদের কল্যাণের কথা চিন্তা করছে না। সেখানে এলাকার তরুণ-যুবকরা এগিয়ে এসেছে এটা জণপ্রতিনিধিদের জন্য চরম চপেটাঘাত । আমরা তরুণ-যুবকদের এমন সফল কর্মচাঞ্চেল্যের জন্য সাধুবাদ জানাই এবং নিন্দাবাদ জানাই এধরনের জণপ্রতিনিধিদের যারা দুঃসময়ে এলাকার জনমানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে গাঁ-বাচিয়ে চলেন। ৩১ জুলাই ২০২০.