ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বহিরাগত প্রবেশ নিষেধ

বাংলা রিপোর্ট : প্রাচ্যের অক্সফোর্ডখ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের সবচেয়ে পুরোনো বিশ্ববিদ্যালয়। যার অবস্থান ঢাকা শহরের প্রাণকেন্দ্রে। বিভিন্ন দিবস, অনুষ্ঠান, উৎসব–উদযাপনে ক্যাম্পাসটিতে বহু মানুষের উপস্থিতি দেখা যায়।চলে গভীর রাত পর্যন্ত আড্ডা।

সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের বিষয়ে সোচ্চার হয়েছেন। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও বহিরাগতরোধে ব্যবস্থা নিচ্ছে।

আজ ১৬ নভেম্বর মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানী নগরবাসীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, প্রয়োজন ছাড়া ক্যাম্পাসে আগমন না করার জন্য।

প্রয়োজন ছাড়া নগরবাসীকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে না যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলা

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে বিনা প্রয়োজনে ক্যাম্পাসে না আসতে আমরা বরাবরই নিরুৎসাহিত করে থাকি, এখনও করছি।শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় না থাকলে জাতির বড় ক্ষতি হবে। নিরাপদ ক্যাম্পাস নিশ্চিতের জন্যই আমরা কাজ করছি।

প্রক্টর বলেন, ক্যাম্পাসকে পার্ক বা বিনোদনকেন্দ্রের মতো ব্যবহার করা যাবে না। শিক্ষার পরিবেশ সমুন্নত রাখতে আমরা সবার সহযোগিতা চাই। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস আড্ডার জায়গা নয়, আড্ডার জায়গা হলো পার্ক, রেস্তোরাঁ ও কফি হাউজ।

প্রক্টর জানান, গত কয়েক দিন ক্যাম্পাসে অভিযান চালিয়ে কয়েক ডজন গাড়ির মালিককে জরিমানা করা হয়েছে। ক্যাম্পাসের সড়কে ভারি যানবাহনের চলাচল ও বহিরাগত নিয়ন্ত্রণে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিম এবং পুলিশের সহযোগিতায় শিক্ষার্থীদের একটি অংশও নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছে। ক্যাম্পাসের টিএসসি এলাকার পাশে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ফটকের সামনের ভাসমান দোকানগুলোও উচ্ছেদ করা হয়েছে বলে জানান প্রক্টর।১৬ নভেম্বর ২০২১.