আজ থেকে বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ

বাংলা রিপোর্ট : ক্লিন ফিড ছাড়া (বিজ্ঞাপনমুক্ত) বিদেশি কোনো টিভি চ্যানেল দেশে সম্প্রচার চালাতে পারবে না বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

আজ ১ অক্টোবর শুক্রবার থেকে বন্ধ করে দেয়া হয় বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার।অর্থাৎ বিজ্ঞাপনসহ অনুষ্ঠান প্রচার করে—এমন বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার বাংলাদেশে বন্ধ করে দিয়েছে কেবল অপারেটররা।

সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, যেসব বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপনসহ অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়, সেগুলো বাংলাদেশে দেখানো যাবে না।কেবল অপারেটররা বলছেন, বিজ্ঞাপনসহ অনুষ্ঠান প্রচার করে—এমন বিদেশি চ্যানেলগুলো থেকে বিজ্ঞাপন কেটে বাদ দিয়ে সম্প্রচার করা সম্ভব নয়। এ কারণে তারা চ্যানেলগুলো দেখানোই বাদ দিয়ে দিয়েছেন।

বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন বিহীন ক্লিন ফিড প্রচারের কথা সরকারের পক্ষ থেকে দীর্ঘদিন ধরে বলা হলেও সে বিষয়ে কারও কর্ণপাত না থাকায় বিদেশি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করা হয়েছে। তবে বলা হয়েছে যত দ্রুত ক্লিন ফিড সরবরাহ করা হবে তত দ্রুতই চ্যানেলগুলো আগের অবস্থানে ফিরে আসবে। এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন অনার (এ্যাটকো)।

দেশের টেলিভিশন শিল্পের উন্নয়নে এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন টেলিভিশনের সাথে জড়িত সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী ও কলাকুশলীগন।তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেছিলেন, দেশে যেসব বিদেশি চ্যানেল আছে, আইন অনুযায়ী তারা ক্লিন ফিড চালাতে বাধ্য। কিন্তু তাগাদা দেওয়া সত্ত্বেও এসব চ্যানেল ক্লিন ফিড করে পাঠাচ্ছে না। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, ৩০ সেপ্টেম্বরের পরে দেশে কোনো অবস্থাতেই ক্লিন ফিড ছাড়া বিদেশি চ্যানেলকে চালাতে দিতে পারি না। আইন অনুযায়ী, ক্লিন ফিড ছাড়া বিদেশি চ্যানেল আমাদের এখানে সম্প্রচার করতে পারে না। ১ অক্টোবর ২০২১.